এই বিখ্যাত তারকাদের বয়স বাড়লেও নিজেদের বন্ধুত্ব যেন চির যৌবনা, দেখুন অসাধারন গ্যালারি

ম্যারিলিন ম্যানসন এবং জনি ডেপ দুজনের শরিরেই একই ট্যাটু রয়েছে! এড শেরান কোর্টনি কক্সের সৈকতের বাড়িতে বসবাস করতেন। এই বিষয়গুলো হতবাক করার মত নয়, কারণ তাঁরা একে ওপরের ঘনিষ্ঠ বন্ধু! বন্ধুত্ব একটা বৃক্ষের মতো যা যত্ন ও ভালোবাসা দিয়ে বড় করতে হয়। জীবনে অনেক ক্ষেত্রে বন্ধুত্বের গুরুত্ব পরিবার কিংবা পরিজনের চেয়ে কোন অংশে কম নয়। আজ আমরা আপনাদের সামনে পেশ করছি, সেই সব তারকা ও তাঁদের বন্ধুদের যাদের সাথে বছরের পর বছর সম্পর্ক টিকিয়ে তাঁরা প্রমাণ করেছেন বন্ধুত্ব অমর ও চিরযৌবনা।

১. জেনিফার লরেন্স এবং এমা স্টোন

তাঁরা দুজনে বাস্তব জীবনে দেখা হওয়ার আগে অনলাইনে দেখা করেছিলেন। বর্তমানে দুজনকে একসাথে বিভিন্ন ছবিতে দেখা যায়। শুধু তাই নয় নিয়মিত একজন আরেকজনের সাথে সাক্ষাৎ করেন, একসাথে ভ্রমণ করেন এবং অন্যান্য নামিদামি তারকাদের সাথে বিভিন্ন পার্টিতে যোগ দেন।

২. কেট হডসন এবং জেনিফার অ্যানিস্টন

তাঁরা দুজন এতোটাই ঘনিষ্ঠ বন্ধু যে ঠাট্টা করে একজন আরেকজনের নিতম্বও টিপে দেন তাও আবার জনসমক্ষে! আসলে অনেক ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্ব ছাড়া এমন ছেলেমানুষি সম্ভব না। একমাত্র বন্ধুদের কাছেই আপনি পুরোপুরি অবমুক্ত একটি প্রাণী যার যেকোনো সময় যেকোনো কিছু করার অধিকার রয়েছে!

৩. মিলি সাইরাস এবং কেলি ওসবোর্ন

মিলি এবং কেলি ‘সো আন্ডারকভার’ নামের একটি কমেডি ছবির শুটিংয়ে অভিনয় করার পর থেকেই বন্ধু বনে যান। তারা শীঘ্রই উপলব্ধি করলেন যে তাঁরা একসাথে কাজ করে অনেক দ্রুত সামনে এগোতে পারবেন। হতে পারে দুজনেই যেহেতু সঙ্গীতজ্ঞদের কন্যা এজন্যই তাঁদের এত ভালো বন্ধুত্ব হয়েছে!

৪. স্নূপ ডগ এবং মার্থা স্টুয়ার্ট

এই দুজনের সম্ভাব্য কোন জিনিস গুলোর মধ্যে মিল থাকতে পারে? কে জানে! কিন্তু তাঁরা দীর্ঘ ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে বন্ধুত্বের সম্পর্কে অবস্থান করছেন। ২০১৬ সালে তারা দুজন নিজেদের একটি রান্নার অনুষ্ঠান ও প্রকাশ করেন। স্নুপ ডগ প্রকৃত অর্থে তাঁর বন্ধুকে প্রচন্ড ভালবাসেন, ” আমি মার্থার মত কাউকে এখন পর্যন্ত পাইনি, যখন আমরা একসাথে হই, প্রাকৃতিক ভাবেই ভালবাসা, শান্তি এবং একতার এক অনন্য সংযোগ তৈরি হয়।”

৫. জনি ডেপ এবং ম্যারিলিন ম্যানশন

ম্যানশন এবং ডেপ দুজনে খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু, ম্যারিলিন জনি ডেপের মেয়ে লিলি রোজের ধর্ম বাবা। সে জনি ডেপকে বিভিন্ন ফিল্ম প্রিমিয়ারে সাপোর্ট করেন এবং জনি ডেপ বন্ধুর কনসার্টে তাই অংশগ্রহণ করেন। আর কি চাই? তাদের দুজনের বন্ধুত্বের একই ট্যাটুও রয়েছে!

৬. ক্রিস জেনার এবং জেনিফার লরেন্স

অন্যান্য সকল অতি ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের মত, ক্রিস এবং জেনিফার শুধুমাত্র ক্যামেরাতেই মানুষকে বোকা বানানো এবং প্রচুর মজা করার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকেন না, বরং তারা একজন অন্যজনকে বিভিন্নভাবে বোকা বানান। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, জেনিফারকে বলল ক্রিসমাসের জন্য তাঁর একটা পোর্শে ব্যান্ডের গাড়ি দরকার, জেনিফার তাঁর বন্ধুর স্বপ্নকে সত্যি করে দেয়, তবে একটি খেলনা গাড়ি দিয়ে!

৭. কেট উইন্সলেট ও লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও

এই দুজন টাইটানিক’ ছবির শুটিং সেটে মিলে ছিলেন। যদিও ছবিটির শেষের অংশটা ছিল অত্যন্ত করুন যেখানে জ্যাক পানিতে ডুবে মরেছিল! তবে তাঁদের বন্ধুত্ব বাস্তবে কখনো ডুবে যায়নি। তারা একে অপরের সম্পর্কে মিষ্টি মন্তব্য করে থাকেন। লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও সবসময়ই স্বীকার করেন যে কেট উইন্সলেট “তাঁর প্রজন্মের সবচেয়ে সেরা অভিনেত্রী!”

৮. এ্যাড শেরান এবং কোর্টনি কক্স

এ্যাড এবং কোর্টনি প্রকৃত অর্থেই দুজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু। এ্যাড কোর্টনির সৈকতের বাড়িতে বসবাস করত। তিনি বলেন আমি এজন্য তাকে কখনো ভাড়া দেই নি, শুধুমাত্র বিছানা গোছাতাম আর চা বানাতাম। তিনি আরো বলেন তাঁর খুব ইচ্ছা ছিল কোর্টনির বিয়েতে কিছু গান গাইবেন, কিন্তু সেটা আর হয়নি যেহেতু বিয়েটা ভেঙে গিয়েছিল!

৯. সেলেনা গোমেজ এবং জেনিফার অ্যানিস্টন

72nd Annual Golden Globe Awards Post-Party.

সেলেনা গোমেজ মূলত ৮ বছর বয়স থেকেই জেনিফারের একজন ভক্ত ছিলেন। যখন সেলেনা প্রথম জেনিফারের সাথে সশরীরে একটি ফিল্ম এওয়ার্ড অনুষ্ঠানে দেখা করেছিলেন তখন সেলেনা এতটাই ভীত ছিলেন যে তিনি দৌড়ে সেখান থেকে চলে গিয়েছিলেন। কিন্তু তাতে কি এসে যায়, বর্তমানে তাঁরা খুব ভালো বন্ধু। জেনিফার সবসময় তাঁর বন্ধুদের খেয়াল রাখেন। সেলেনা ও বলেছেন, জেনিফার সত্যি একজন ভালো ম্নের মানুষ এবং আমার ভালো বন্ধু।

১০. ফিফটি সেন্ট এবং বেটি মিডলার

এটা ভাবার কোন প্রয়োজন নেই যে, এরা দুজন একসাথে কোন র‍্যাপ গান করবেন! মূলত তাঁদের দুজনের আগ্রহ একটি জায়গায় একই রকম সেটা হলো একটি অনুদান প্রকল্পে এক সঙ্গে কাজ করছেন। তাঁরা নিঃসন্দেহে ভালো বন্ধু। বন্ধুত্বে বয়স একটি সংখ্যা!

১১. জেমস ম্যাকঅ্যাভয় এবং মাইকেল ফাসবেন্ডার

এই অভিনেতাগণ ঘনিষ্ঠ বন্ধু এবং প্রায়শই একই চলচ্চিত্রে অংশ নিতে দেখা যায় তাঁদের। ২০১১ সালে এক্স-মেন: ফার্স্ট ক্লাসের শুটিং সেটে তাদের বন্ধুত্ব শুরু হয়েছিল। যদিও ফ্যান বা ভক্তগণ তাঁদের এই ঘনিষ্ঠতার আড়ালে যৌন সম্পর্ক রয়েছে বলে গুজব করে থাকেন, তবে এই তারকা বন্ধুদ্বয় বিভিন্ন শোতে বলেছেন তাঁরা খুব ভালো বন্ধু পাশাপাশি তাঁরা এই ধরণের কথা মজা করে উড়িয়ে দিয়েছেন।

বন্ধুরা, বন্ধুত্বের সম্পর্কে অনেক সময় সমস্যা আসতে পারে, তবে সেগুলোকে না পুষে বন্ধুত্বকে পুষতে পারলে জীবন হতে পারে আরো সহয ও সুন্দর। আয়োজনটি ভালো লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না যেন! সাথে থাকার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।

Loading...