কোলেস্টেরল সহ আরও অনেক শারীরিক সমস্যার মহৌষধ বেগুন

ধীরে ধীরে গরম পড়তে শুরু করেছে। এই সময়ে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে নানা রোগ। নিজেকে এবং পরিবারকে এই সময়ে সুস্থ রাখতে ভরসা রাখতে পারেন মৌসুমি সবজিতে। কিন্তু বাজারে গেলেই এত রকম রঙিন সবজির ভিড়ে এই মৌসুমে শরীর বান্ধব কোনগুলো তা বেছে নেয়া বেশ কঠিন।

তবে হাতের কাছে বেগুন থাকতে নতুন করে ভাবনার কোনো অবকাশই থাকে না। বেগুন পোড়া হোক বা বেগুন ভাজা, বেগুন দিয়ে মাছের ঝোল যাই হোক, ঋতু বদলের এই সময় বেগুন শরীরের যত্ন নেয় নানা রোগে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক কোন কোন উপকারিতা এই সময় পাতে থাকা চাই বেগুন-

ওজন কমাতে

বেগুনে আছে উচ্চমাত্রার ফাইবার এবং অনেক কম ক্যালোরি। যারা ওজন কমাতে চাইছেন তারা চাইলেই প্রতিদিনের খাত্যতালিকায় রাখতে পারেন বেগুন।

কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখে

যাদের কোলেস্টেরল আছে তাদের জন্য বেগুন হতে পারে অত্যন্ত উপকারী একটি সবজি। বেগুন শরীরের ক্ষতিকারক কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রেখে শরীর সুস্থ রাখে।

বিপাক ক্রিয়া উন্নত করে

অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট এবং ভিটামিন ‘ই’ ও ‘কে’ সমৃদ্ধ বিপাক ক্রিয়া স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে বেগুন। আর শরীরের সার্বিক সুস্থতার অন্যতম ভিত্তি হলো সঠিক বিপাক প্রক্রিয়া।

হজমে সাহায্য করে

অনেকের ধারণা বেগুন খেলে সহজে হজম করা দুষ্কর। পুষ্টিবিদরা বলছেন, এই ধারণা একেবারে ভ্রান্ত। কারণ বেগুনে আছে ডায়েটারি ফাইবার, যা দ্রুত হজম করাতে এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতেও সাহায্য করে।

স্মৃতিশক্তি ভালো রাখতে

বেগুনে উপস্থিত ফাইটোনিউট্রিয়েন্ট মস্তিষ্কের কোষে রক্ত চলাচল সচল রাখে এবং স্মৃতিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে। বেগুনে উপস্থিত বিভিন্ন উপকারী যৌগ মস্তিষ্কের টিউমারের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে।

অন্তঃসত্ত্বা নারীদের জন্য

অন্তঃসত্ত্বা নারীর শরীর সুস্থ রাখতে বেগুন সহায়ক হতে পারে। নতুন মা যারা বাচ্চাকে স্তন্যপান করান, তাদের জন্যও বেগুন খুব উপকারী। এছাড়াও ঋতুস্রাব পূর্ব উপসর্গগুলো রোধ করতেও বেগুন অত্যন্ত কার্যকরী।

Loading...

Similar Posts