• Mon. Dec 5th, 2022

. . . Online Bangla News, Tips and Care

কার্চ সেতুতে বিস্ফোরণের ঘটনায় রাশিয়ায় ৮ জনকে আটক

রাশিয়ার মূল ভূখণ্ডের সঙ্গে ক্রিমিয়াকে যুক্ত করা কার্চ সেতুতে গত শনিবার বিস্ফোরণের ঘটনায় আটজনকে আটক করার কথা জানিয়েছে রাশিয়া। রাশিয়ার গোয়েন্দা সংস্থা ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিস (এফএসবি) বলেছে, আটক ব্যক্তিদের মধ্যে পাঁচজন রুশ এবং বাকিরা ইউক্রেন ও আর্মেনিয়ার নাগরিক।

সংস্থাটি আরও বলেছে, কার্চ সেতুতে হামলার নেপথ্যে ছিল কিয়েভ। এদিকে কার্চ সেতুতে বিস্ফোরণের ঘটনাটি নিয়ে রাশিয়ার তদন্তকে ‘অর্থহীন’ বলছেন ইউক্রেনের কর্মকর্তারা। সেতুটিতে বিস্ফোরণ হওয়ার পর থেকে রাশিয়ার কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার কর্মকর্তারা দাবি করে আসছেন, এটি ছিল সন্ত্রাসী হামলা।

ক্রিমিয়া সেতুতে বিস্ফোরণের ঘটনাকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের জন্য একটি বড় আঘাত হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। ২০১৪ সালে ক্রিমিয়া উপদ্বীপ দখলে নেয় রাশিয়া। এর চার বছর পর ইউরোপের সবচেয়ে বড় এই সেতু উদ্বোধন করেন পুতিন। রাশিয়া থেকে ইউক্রেনে চলাচলের জন্য বড় একটি রুট এই সেতু।

কার্চ সেতুতে বিস্ফোরণের এই ঘটনাকে ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড’ বলেছেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। তিনি বলেছেন, রাশিয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ বেসামরিক অবকাঠামো ধ্বংসের লক্ষ্যে এই হামলা চালানো হয়েছে। হামলার পরপরই তিনি এর কঠোর জবাব দেওয়ার হুমকি দেন। তাঁর হুমকির পরে ইউক্রেনজুড়ে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে রাশিয়া।

এফএসবির কর্মকর্তারা বলছেন, ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন মেইন ইন্টেলিজেন্স ডিরেক্টরেট, এর প্রধান কিরিলো বুদানভ, সংস্থাটির কর্মী ও এজেন্টরা মিলে এই হামলার পরিকল্পনা করেছেন। তবে ইউক্রেনের ওই গোয়েন্দা সংস্থার মুখপাত্র আনদিরি ইয়ুশভ মস্কোর এ অভিযোগকে ‘ফালতু’ বলেছেন।

Loading...